-->

গ্যালাক্সি এম০১এস হিলিও পি২২ এবং ডুয়াল ক্যামেরার সাথে বের হলো ভারতে

galaxy-m01s-launched-in-india

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম০১ বের হয়েছে পুরো এক মাস ঠিক মত হয়নি আর এর মধ্যেই স্যামসাং ফোনটির সাকসেসর গ্যালাক্সি এম০১এস  অফিসিয়ালি অ্যানাউন্স করে দিল গতকাল ভারতে।

নতুন এই গ্যালাক্সি এম০১এস ফোনটিতে ইউজ করা হয়েছে মিডিয়াটেক চিপসেট ও একটা বড়ো ডিসপ্লে এবং একটা ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর যেটা এর প্রেডিসেসোর এর উপর আপগ্রেড।

গ্যালাক্সি এম০১এস স্পেক্স ও ফিচারস

যারা ভাবছেন যে এটা স্যামসাং এর একটা মিডরেঞ্জ ফোন তাদের বলছি যে এটা এম সিরিজ এর একটা এন্ট্রি লেভেল ফোন। এতে আহামরি কোনো ফিচারস আপনি পাবেন না।

ফোনটি সম্পূর্ণভাবে বানানো হয়েছে পলিকার্বনেট মেটেরিয়াল বা আরেক কথায় প্লাস্টিক দিয়ে এবং এর সেগমেন্ট অনুসারে এর থেকে বেশি আশা করা যায় না।

ফোনটিতে পিছনে আছে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ এবং একটা ফিজিক্যাল ফিঙ্গার প্রিন্ট স্ক্যানার। এবং ফোনটির সামনের দিকে থাকছে ৬.২ ইঞ্চির এইচডি প্লাস পিএলসি টিএফটি ডিসপ্লে যেখানে আছে ইন ফিনিটি ভি শেপ এর নচ ও ১৯:৯ এর অ্যাসপেক্ট রেশিও।

ডিসপ্লেটির রেজুলেশনে এইচডি প্লাস তথা ১৫২০×৭২০ পি।

ডিসপ্লের ভিশেপ এর নচ এর ভিতরে হাউস করা হয়েছে ৮ মেগা পিক্সেল (এফ/২.০) এর সেলফি স্ন্যাপার। আর পিছনের ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরার মধ্যে একটা ১৩ মেগা পিক্সেল (এফ/১.৮) এর প্রাইমারি ক্যাম এবং একটা ২ মেগা পিক্সেল এর ডেপথ সেন্সর।

রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এর নিচে একটা ছোটো এলইডি ফ্ল্যাশ আছে যেটা সম্পূর্ণ মডিউল টিকে সম্পূর্ণ করে।

Galaxy-M01S-Camera

আমি নিশ্চিত যে ফোনটির প্রসেসর এর নাম শুনে আপনি বিরক্ত হয়ে যাবেন। দুর্ভাগ্যবশত এই গ্যালাক্সি এম০১এস ফোনটিতে ব্যাবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক এর হিলিও পি২২ প্রসেসর।

সাধারণত এই মিডিয়াটেক সিলিকন টি দেখা যায় গ্যালাক্সি এম০১এস ফোনটি থেকেও কম দামি ফোনে। এছাড়া ফোনটি তে পাবেন ৩ মেমোরি এবং ৩২ জিবি স্টোরেজ যেটা ৫১২ জিবি পর্যন্ত মেমোরি কার্ড লাগিয়ে বাড়ানো সম্ভব।

গ্যালাক্সি এম০১এস ফোনটি আউট অফ দা বক্স চলবে অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই এর উপর। স্যামসাং এই ফোনটিতে প্রদান করেছে ৪০০০ মিলি এম্প আওয়ার এর ব্যাটারি যেটা অনেক কম না হলেও খুব বেশি না এখনকার সময়।

যারা ৪০০০ মিলি এম্প আওয়ার এর নিচের ব্যাটারি ওয়ালা ফোন চালান তারা ভাবতে পারেন এটা কি কস ?

ওয়েল, তাদের বলে দেই যে এই ফোনটির সমান দামি ফোনেও ৬০০০ মিলি এম্প আওয়ার এর ব্যাটারি দিয়েছে অনেক ফোন নির্মাতা।

ফোনটিতে সাপোর্ট মিলবে মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট, ব্লুটুথ ৪.২ এবং ওয়াইফাই ৮০২.১১ বি/জি/এন ( ২.৪ গিগা হার্টজ) এর।

প্রাইস এবং এভেইলেবিলিটি

ভারতে স্যামসাং এই ফোনটির মূল্য রেখেছে ৯,৯৯৯ রুপি যেটা প্রায় ১৩৩ ডলার বা ১৩ হাজার টাকা। বাংলাদেশে আসতে একটু সময় লাগবে।

ভারতে কবে থেকে ফোনটি সেল হবে স্যামসাং বলেনি তবে তাদের অফিসিয়াল স্যামসাং স্টোর থেকেই প্রথমে সবাই কিনতে পারবেন।

Post a Comment

আমরা স্প্যাম ঘৃণা করি!

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো