-->

আসুস রগ ফোন ৩ বের হলো ১৬ জিবি মেমোরি এবং স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ এর সাথে

Asus-Rog-Phone-3

আসুস তাদের এবছরের সেরা গেমিং স্মার্টফোন আসুস রগ ফোন ৩ আনভেইল করে দিয়েছে। যদি এই সপ্তাহে লিনোভো লিজিয়ন ফোন যথেষ্ট হাইপ না বানায় তাহলে আসুস এর গেমিং ফোন এই হাইপকে আরো বাড়িয়ে তুলতে পেরেছে।

কোম্পানি আজ তাদের হিউজলি সাকসেফুল ফোন আসুস রগ ফোন ২ এর সাকসেসর রগ ফোন ৩ বের করে। ফোনটিতে আছে লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ প্রসেসর যেটা লিজিয়ন ফোন এর মধ্যেও আছে।

তাছাড়া ফোনটিতে আছে ১৪৪ হার্টজের রিফ্রেশ রেট সম্পন্ন ডিসপ্লে প্যানেল এবং ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা অ্যারেসহ বড়ো ৬০০০ মিলি এম্প আওয়ার এর ব্যাটারি।

আসুস রগ ফোন ৩ এর স্পেক্স ও ফিচারস

আসুস রগ ফোন ৩ এর ডিজাইন অনেকটা এর পূর্বপুরষের মতো। এই ফোনটির টপ এবং বটম বেজেল সভাবতই অন্য কোনো নন-গেমিং ফোন থেকে সামান্য বেশি। তবে এর পিছনে বেশ কিছু কারণ আছে। 

প্রথম কারণ হলো ভালো গেমিং এক্সপেরিয়েন্স– অনেক সময় গেম খেলার সময় হঠাৎ করে টপ বা বটম স্ক্রিনে টাচ লাগলে গেম খেলা বিঘ্নিত হয় এবং এই অ্যাকসিডেন্টাল টাচ প্রটেকশন এর জন্যই এই এক্সট্রা ফরহেড ও চিন বেজেল দেওয়া হয়।

দ্বিতীয়ত টপ এবং বটমে এক্সট্রা বেজেল থাকলে সেই সুবিধা নিয়ে ফ্রন্ট ফায়ারিং স্পিকার ফিট করা যায়। আর আসুস রগ ফোন ৩ এর ফ্রন্ট ফায়ারিং স্পিকার গুলো আমার ব্যাক্তিগত প্রিয়। 

ফোনটির ব্যাক ডিজাইনও খুব একটা চেঞ্জ হয় নি। পিছনের ব্যাক প্যানেলটি সেম চিত্রাভ লাইন ও কৌণিক ক্যামেরা মডিউল এবং হিট ভেন্ট নিয়ে আসে। এবং এটা ফোনটাকে একটা গেমিং লুক দেয়।  

তাছাড়া ফোনটির পিছনে আরো আছে ট্রিপল ক্যামেরা সিস্টেম, আরজিবি লিট আরওজি লোগো এবং গরিলা গ্লাস ৩ এর প্রটেকশন। এবং ফোনটির ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ডিসপ্লের ভিতর দেওয়া হয়েছে। আর ফোনটির ওজন ২৪০ গ্রাম যেটা অত্যাধিক।

আসুস রগ ফোন ৩ এর ১৪৪ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে

Asus-Rog-Phone-3

সামনের দিকে রগ ফোন ৩ তে পাবেন ৬.৫৯" ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস রেজুলেশনের বড়ো অ্যামোলেড ডিসপ্লে প্যানেল যার রিফ্রেশ রেট ১৪৪ হার্টজ বা ১ মিলি সেকেন্ড এবং এর টাচ রেসপন্স রেট ২৭০ হার্টজ।

ডিসপ্লেটির রিফ্রেশ রেট আর টাচ রেসপন্স রেট দুইটাই এর প্রেডিসেসর থেকে বেশি যেখানে রগ ফোন ২ তে ছিল ১২০ হার্টজ এর রিফ্রেশ রেট ও ২৪০ হার্টজ এর টাচ রেসপন্স রেট। 

রগ ফোন ৩ এর ডিসপ্লে প্যানেলটি কে আসুস বানিয়েছে ১৯:৫:৯ এসপেক্ট রেশিও অনুসারে। এবং প্যানেলটি ডিসিআইপি-৩ ওয়াইড কালার গেমেট, ডেল্টা-ই <১ ও ১০ বিট এইচডিআর ১০+ সার্টিফিকেশনসহ সর্বোচ্চ ১০০০ নিটসের ব্রাইটনেস পর্যন্ত যেতে পারে। 

রগ ফোন ৩ এর স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ চিপসেট

অভ্যন্তরে ফোনটিকে পাওয়ার করছে কুয়ালকম এর স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ চিপসেট যেটা সম্প্রতি বের করে এই মোবাইল চিপ নির্মাতা। এবং রগ ফোন ৩ হলো সে সকল ফোনগুলোর মধ্যে যেগুলো সর্বপ্রথম স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫+ ফ্ল্যাগ শিপ চিপটি ইউজ করছে।

তাছাড়া আপনি ফোনটিতে পাবেন সর্বোচ্চ ১৬ জিবি পর্যন্ত এলপিডিডিআর৫ গ্রেডের মেমোরি ও ৫১২ জিবি পর্যন্ত ইউএফএস ৩.১ স্টোরেজ।

রগ ফোন মানেই গেমিং। তাই আর এই রগ ফোন ৩ এর থার্মাল নিয়ে কথা না বললেই নয়। আসুস রগ ফোন ৩ নিয়ে আসে ৩য় জেনারেশন এর গেম কুল সিস্টেম।

অফিসিয়াল প্রেস রিলিজ অনুযায়ী ফোনটি এখন ৬ গুন বেশি বড়ো হিটসিংক সাপোর্ট করে, পুনরায় ডিজাইন করা কপার থ্রিডি ভ্যাপর চেম্বার ও পূর্বের তুলনায় বড়ো গ্রাফাইট ফিল্ম সাপোর্ট করে। 

আসুস বলে এই থার্মাল সিস্টেম স্ট্যাবল গেমপ্লে এক্সপেরিয়েন্স দেওয়ার জন্য ফোনটির টেম্প রেচার মানানসই রাখবে।

আসুস রগ ফোন ৩ এর এয়ার ট্রিগারস ৩

Asus-Rog-Phone-3

পূর্বের রগ ফোন ২ এর যে এয়ার ট্রিগার বাটন ছিল সেগুলোর উপর অনেক উন্নতি করা হয়েছে এই আসুস রগ ফোন ৩ তে। এই বাটনগুলোতে এখন মোশান জেসচার এর সাপোর্ট অনা হয়েছে।

গত বছরের আসুস রগ ফোন ৩ এর এয়ার ট্রিগার বাটনে আনা হয়েছিল ট্যাপ এবং স্লাইড জেসচার নরমাল বাটন ফাংশনালিটির সাথে।

তবে রগ ফোন ৩ দিয়ে এখন আরো অনেক কিছু কর যাবে কারণ এখন এটি সুয়াইপিং এবং ডুয়াল পার্টিশন ফাংশনও সাপোর্ট করে।

প্রথমে এর সুয়াইপিং ফাংশন নিয়ে কথা বলি। নাম দেখে বুঝতে পারছেন যে বাটনে সুয়াইপ করার সাথে এর সম্পর্ক আছে। এবং আসলেই তাই। 

আপনি প্রত্যেকটা এয়ার ট্রিগার বাটনে রাইট ও লেফট সুয়াইপ করতে পারবেন এবং এই দিয়ে মোট ৫ টা এয়ার ট্রিগার ফাংশন সাপোর্ট করে রগ ফোন। 

যদি এটা একটু কম হয়ে যায় তাহলে আপনাকে আরো একটা মজার ট্রিগার বাটন ইউজের কথা বলি – ভার্চুয়াল বাটন। হ্যা, আপনি ট্রিগার বাটন গুলোর দৈর্ঘ্য ভাগ করে সেগুলোকে ৪টা ভার্চুয়াল বাটনে ট্রান্সফর্ম করে নিতে পারবেন। 

আবার আসুস এই ফোনটাতেও অতিরিক্ত পোর্ট অফার করেছে ফোনটির এজে বা পাশগুলোতে।  

সাধারণভাবে এই ফোনটিতেও একটা সাইড মাউন্টেড ইউএসবি-সি পোর্ট দেওয়া হয়েছে যেটা ইউজ করে আপনি গেম খেলার সময় কোনো অ্যাক্সেসরিজ বা চার্জিং কেবল কানেক্ট করতে পারবেন।

আসুস রগ ফোন ৩ এর ৬৪ মেগা পিক্সেল এর ট্রিপল ক্যামেরা

আসুস রগ ফোন ২ এর মধ্যে ছিল ডুয়াল ক্যাম সেটআপ এবং সেই ক্যামেরা গুলো ভালোই ছিল। আর এবার রগ ফোন ৩ তে আসুস অফার করেছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ।

পিছনে মেইন ক্যামেরা হিসেবে পাবেন ৬৪ মেগা পিক্সেল (সনিআইএমএক্স৫৮৬) এর এফ/১.৮ এর এপারচার সম্পন্ন সেন্সর। সাথে আছে ১৩ মেগাপিক্সেল এর এফ/২.৫ এপারচার সম্পন্ন আল্ট্রা ওয়াইড ক্যাম যার ফিল্ড অফ ভিউ ১২৫ ডিগ্রি।

তাছাড়া ফোনটিতে একটা ৫ মেগা পিক্সেল এর ম্যাক্রো ক্যামও পাবেন।

আসুস রগ ফোন ৩ সর্বোচ্চ 8K পর্যন্ত ভিডিও ধারণ করতে পারে এবং 4K পর্যন্ত স্লো মোশন ভিডিও ধারণ করতে পারে। তাছাড়া সামনের দিকে আছে ২৪ মেগাপিক্সেল এর ফ্রন্ট ক্যাম।

আসুস রগ ফোন ৩ এর ৬০০০ মিলি এম্প আওয়ার এর ব্যাটারি

Asus-Rog-Phone-3-Specs-Features

রগ ফোন ৩ গেমিং ফোনটির আরেকটি মেইন অ্যাট্রেকশন হলো এর অস্থির বড়ো ৬০০০ মিলি এম্প আওয়ার এর ব্যাটারি। এর পূর্বপুরুষেও এই একই ব্যাটারি ক্যাপাসিটি ছিল যেটা সবাই পছন্দ করেছে।

তাছাড়া এই ৬০০০ মিলি ব্যাটারিকে চার্জ করার জন্য বক্সে পাওয়া যাবে ৩০ ওয়াট এর ফাস্ট চার্জার যেটা আসুস দাবি করে মাত্র ৪৬ মিনিটের ভিতর ফোনটিকে ৭৫ শতাংশ চার্জ করে দিবে।  

তাই যারা কঠিন গেমিং করেন তাদের জন্য এই ফাস্ট চার্জিং অনেক হেল্প করবে। যে জিনিসটা এই গেমিং ফোনটিতে মিসিং সেটা হলো একটা ৩.৫ মিলিমিটার এর হেড ফোন জ্যাক।

তবে আসুস ফোনটির বক্সে প্রদান করবে অ্যারো এক্টিভ কুলার ৩ যেটা শুধু যে ফোনটিতে হেড ফোন জ্যাক ফিরিয়ে আনবে তা নয় বরং ফোনটির তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমিয়ে আনতে সাহায্য করবে। 

আসুস রগ ফোন ৩ এর প্রাইসিং এবং এভেইলেবিলিটি

রগ ফোন ৩ দুইটা কনফিগারেশনে পাওয়া যাবে যথা ৮/১২৮ জিবি এবং ১২/২৫৬ জিবি। ভারতে ফোনটির দাম নিচে উল্লেখ করা হলো:

  • ৮+১২৮ জিবি – ৪৯,৯৯৯ রুপি (৬৭০$)
  • ১২+২৫৬ জিবি – ৫৭,৯৯৯ রুপি (৭৭৭$)

বাংলাদেশেও ফোনটি আসবে কিন্তু কখন সেটা এখন বলা যাবে না। নতুন এই গেমিং ফোন নিয়ে আপনার মতামত কমেন্ট বক্সে জানতে ভুলবেন না।

Post a Comment

আমরা স্প্যাম ঘৃণা করি!

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো